পাবনা টু ঢাকা বাসের সময়সূচী, ভাড়া, অনলাইন টিকিট 2022

আপনাদের সকলকে স্বাগতম জানাচ্ছি আজকের আমাদের এই পোস্টে। আপনারা যদি খুঁজে থাকেন পাবনা টু ঢাকা বাসের সকল তথ্য তাহলে আমরা বলতে পারি আপনারা সঠিক জায়গাতে এসেছেন। আমাদের এই ওয়েবসাইট থেকে আপনারা জানতে পারবেন দেশের প্রত্যেকটি জেলা থেকে প্রত্যেকটি জেলা যাতায়াতের জন্য যাবতীয় তথ্য।

আমরা আজকে যেটা করতে যাচ্ছি পাবনা টু ঢাকা বাসের সকল তথ্য আপনাদের সামনে তুলে ধরতে যাচ্ছি। এতে করে এই রোডে যারা চলাচল করেন তাদের জন্য অনেক সুবিধা হচ্ছে। এখানে আমরা পাবনা টু ঢাকা এই রুটে যে সকল যান চলাচল করে তাদের পরিচিতি আপনাদের সামনে তুলে ধরবে এবং এর পাশাপাশি কখন যাতায়াত করে সেগুলো আপনাদের সামনে তুলে ধরব।

পাবনা টু ঢাকা বাসের সকল তথ্য জানার পূর্বে পাবনা সম্পর্কে কিছু তথ্য

পাবনা জেলা দেশের পরিচিত একটি। যারা পাবনার আশে পাশে বসবাস করেন তারাও খুব ভালোভাবে পাবনা কে চেনেন। বাংলাদেশের মধ্যভাগে অবস্থিত পাবনা গুরুত্বপূর্ণ একটি প্রশাসনিক অঞ্চল। দেশের যে কয়টি জেলা রয়েছে তারমধ্যে উপজেলার সংখ্যা অনুসারে পাবনা জেলা কে এ গ্রেট শ্রেণীভূক্ত করা হয়েছে।

বাংলাদেশে অবস্থিত পাবনা জেলা রাজশাহী বিভাগের একটি প্রশাসনিক অঞ্চল। রাজশাহী বিভাগে দক্ষিণ পূর্বকোণে সৃষ্টি করেছে এই পাবনা জেলা। পাবনার উত্তর দিকে ঘিরে রয়েছে সিরাজগঞ্জ জেলা আর দক্ষিনে পদ্মা নদী এই জেলাকে রাজবাড়ী, কুষ্টিয়া জেলা হতে পৃথক করেছে। পশ্চিমে রয়েছে নাটোর জেলা এবং পূর্ব প্রান্ত দিয়ে যমুনা নদী বয়ে গেছে। পাবনার যে জায়গাতে পদ্মা এবং যমুনা নদী একত্রিত হয়েছে সেই জায়গাটির নাম হল পাবনা আমিনপুর থানা।

পাবনা সঙ্গে দেশের প্রত্যেকটি জায়গায় যোগাযোগ রয়েছে। সড়কের মাধ্যমে যোগাযোগ এবং জলপথ ও বিমান পথে এ তিনটি মাধ্যমে যোগাযোগ করা যায় পাবনার সঙ্গে। পাবনার বাসগুলো দেশের বিভিন্ন জেলাতে যায়। পাবনা বাস টার্মিনালের কাছাকাছি পাবনা রেলওয়ে স্টেশন অবস্থিত।

বাংলা চলিত ভাষার জনক প্রমথ চৌধুরী এই পাবনাতে জন্মগ্রহণ করেন। বাংলাদেশের প্রথম সরকার গঠন করা হয় তার উপ প্রধান সেনাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন এ কে খন্দকার সাবেক পরিকল্পনামন্ত্রী তিনি এই জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। বহু ঐতিহাসিক নিদর্শন এবং প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের শহর পাবনা। পাবনাতে রয়েছে সৌন্দর্যের মুগ্ধ করা চলনবিল। লালন শাহ সেতু, গাজনার বিল, হার্ডিং ব্রিজ,মানসিক হাসপাতাল পাবনা সহ বহু ঐতিহাসিক দর্শনীয় স্থান।

পাবনাতে রয়েছে পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পাবনা মেডিকেল কলেজ, পাবনা পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট, পাবনা টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, পাবনা টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউট, সরকারি এডওয়ার্ড বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, পাবনা ইসলামিয়া কলেজ সহ বহু নান্দনিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।

বর্তমানে পাবনার অর্থনীতি বেশ সমৃদ্ধ এখানে প্রচুর ছোট বড় শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। এছাড়াও এই এলাকার মানুষ কৃষি কাজের সাথে জড়িত রয়েছে বিভিন্ন পেশার মানুষ বিভিন্ন কৃষি কাজ করে তাদের জীবিকা নির্ভর করে থাকে।

পাবনা টু ঢাকা বাসের সময়সূচী

এখন আমরা চেষ্টা করব পাবনা টু ঢাকা এই রুটে চলাচল কারী বাসের সময়সূচী সম্পর্কে আপনাদের একটু ধারনা দিতে। আমরা সব সময় গুরুত্বপূর্ণ তথ্যগুলো আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করার চেষ্টা করি। আশা করছি এই রুটে চলাচলকারী ব্যক্তিদের জন্য এই তথ্যগুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ হবে।

  • পাবনা টু ঢাকা এই রুটে চলাচল করে পাবনা এক্সপ্রেস এর অনেক কয়টি বাস। এই বাসগুলো এসি এবং ননএসি দুই প্রকারের হয়ে থাকে। সকাল বেলাতে পাবনা থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায় পাবনা এক্সপ্রেস এর একটি নন এসি বাস। বাসটি সকাল 5:30 মিনিটে ঢাকার উদ্দেশ্যে পাবনা থেকে ছেড়ে যায় এবং সকাল 10:30 মিনিটে ঢাকাতে এসে পৌঁছায়।
  • পাবনা এক্সপ্রেস এর একটি নন এসি বাস যা সকাল 10:30 মিনিটে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা করে এবং এই এসি বাসটি দুপুর 3:30 মিনিটে ঢাকাতে এসে তার যাত্রা শেষ করে। এই বাসটিতে যাত্রা করা খুবই আরামদায়ক।
  • সরকার ট্রাভেলস এর পাবনা টু ঢাকা এই রুটে বেশ কয়েকটি নন এসি বাস চলাচল করে। বাসগুলোর মধ্যে একটি বাস সকাল 5:55 মিনিটে ঢাকার উদ্দেশ্যে পাবনা থেকে ছেড়ে যায় এবং 11:30 এ ঢাকাতে গিয়ে পৌঁছায়।
  • শাহজাদপুর ট্রাভেলস খুব ভালো একটি বাস কোম্পানি। এই কোম্পানি পাবনা টু ঢাকা এর উঠে নন এসি এবং এসি বাস চালু রেখেছে। একটি নন এসি বাস সকাল 6:15 মিনিটে ঢাকার উদ্দেশ্যে পাবনা থেকে ছেড়ে যায় এবং ঢাকাতে গিয়ে পৌঁছায় সকাল 11:30 মিনিটে।
  • শ্যামলী পরিবহন এসি এবং ননএসি দুইটি বাস নিয়ে পাবনা টু ঢাকা এই রুটে তাদের সার্ভিস প্রদান করছে। শ্যামলী পরিবহনের একটি নন এসি বাস ঢাকার উদ্দেশ্যে পাবনা থেকে ছেড়ে যায় সকাল 6 টা 30 মিনিটে এবং বাসটি সকাল 11:30 মিনিটে ঢাকাতে এসে তার যাত্রা শেষ করে।
  • আলহামরা পরিবহন পাবনা টু ঢাকা এই রুটে একটি পরিচিত মুখ। আলহামরা পরিবহন এর একটি নন এসি বাস সকাল 7:30 ঢাকার উদ্দেশে রওনা করে এবং সকাল 12 টা 30 মিনিটে ঢাকাতে এসে পৌঁছায়।
  • দুপুর বেলাতে শ্যামলী পরিবহনের একটি বাস ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে। দুপুর 1:30 মিনিটে এই বাসটি ঢাকার উদ্দেশ্যে পাবনা থেকে ছেড়ে আসে এবং বিকেল 6 টা 30 মিনিটে ঢাকাতে এসে পৌঁছায়।
  • শাহজাদপুর ট্রাভেলস এর একটি এসি বাস পাবনাঢাকা এই রুটে দুপুর বেলায় চলাচল। বাসটি দুপুর 2:15 ঢাকার উদ্দেশ্য পাবনা থেকে ছেড়ে আসে এবং সন্ধ্যা 7:15 মিনিটে ঢাকাতে এসে তার যাত্রা শেষ করে।
  • হানিফ পরিবহন এই রুটে চলাচল রেখেছে তাদের নন এসি এবং এস এ দুটি বাস। নন এসি বাসের মধ্যে একটি বাস সন্ধ্যা 7 টা 30 মিনিটে ঢাকার উদ্দেশ্যে পাবনা থেকে ছেড়ে যায় এবং রাত 12:30 এ ঢাকাতে এসে পৌঁছায়।
  • হানিফ পরিবহনের একটি এসি বাস দুপুর 2:30 মিনিটে ঢাকার উদ্দেশ্যে পাবনা থেকে ছেড়ে যায় এবং সন্ধ্যা 7:30 এ ঢাকাতে এসে তারা যাত্রা শেষ করে। যেহেতু এটি একটি এসি বাস তাই এই বাসে যাত্রা করা খুবই আরামদায়ক।

পাবনা টু ঢাকা বাসের ভাড়া

আপনারা ইতিমধ্যে পাবনা টু ঢাকা এই রুটে সকল বাসের সময়সূচী সম্পর্কে একটি ধারণা পেয়ে গেছেন। প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী এখন আমরা আপনাদের এই বাসগুলো ভাড়া সম্পর্কে জানাবো। চলুন বাসগুলোর ভাড়া গুলো সম্পর্কে জেনে নি। পাবনা টু ঢাকা দূরত্ব প্রায় 155 কিলোমিটার।

  • পাবনা এক্সপ্রেস তাদের পাবনা টু ঢাকা এই রুটে এসি এবং ননএসি দুইটি বাস চালু রেখেছে। তারা নন এসি বাসের টিকিট মূল্য নির্ধারণ করেছে 500 টাকা এবং এসি বাসের টিকিট মূল্য নির্ধারণ করেছে 550 টাকা
  • পাবনা টু ঢাকা এ রোডে সরকার ট্রাভেলস তাদের কয়েকটি নন এসি বাস চালু রেখেছে এই বাসগুলো টিকিট মূল্য নির্ধারণ করেছে 340 টাকা।
  • শাহজাদপুর ট্রাভেলস এসি এবং ননএসি বাসের মাধ্যমে পাবনাঢাকা এ রোডে সার্ভিস প্রদান করছে। তারা তাদের নন এসি বাসের টিকিট মূল্য 350 টাকা এবং এসি বাসের টিকিট মূল্য 550 টাকা নির্ধারণ করেছে।
  • হানিফ পরিবহন পাবনা টু ঢাকা এই রুটে তাদের টিকিট মূল্য নন এসি বাসের জন্য 350 টাকা এবং এসি বাসের জন্য 550 টাকা নির্ধারণ করেছে।
  • শ্যামলী পরিবহন এসি এবং ননএসি দুইটি বাস সার্ভিস পাবনাঢাকা এই রুটে চালু রেখেছে। তারা এসি বাসের টিকিট মূল্য নির্ধারণ করেছে 450 টাকা এবং নন এসি বাসের টিকিট মূল্য নির্ধারণ করেছে 400 টাকা।
  • আলহামরা পরিবহন নন এসি বাস চালু রেখেছে পাবনাঢাকা এই রুটে। এই বাস এর টিকিট মূল্য নির্ধারণ করেছে 380 টাকা।

অনলাইনে বাসের টিকিট 2022

অনেকেই এই কথাটি শুনে অবাক হন অনলাইনে কিভাবে বাসের টিকিট কাটা যায়। কিন্তু বর্তমানে ইন্টারনেট ব্যবহার করে প্রায় সবকিছুই সম্ভব হচ্ছে। আপনি ইচ্ছে করলে অনলাইনে বাসের টিকিট কাটতে পারবেন শুধুমাত্র আপনার মোবাইল ব্যবহার করেই।

বিস্তারিত জানতে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন এবং দেখুন কতটা সহজেই নিজে থেকে নিজের মোবাইল ব্যবহার করেই আপনি আপনার বাসের টিকিট কেটে নিতে পারবেন। যেকোনো ধরনের সমস্যার জন্য অবশ্যই কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করুন।

Digonto Ahmed

I am Digonto Ahmed. I read in Nasirabad University College. I like to travel. So I am sharing various information about Transport system in Bangladesh

Leave a Reply

Your email address will not be published.